৪ ভাদ্র ১৪২৪ | শনিবার, আগস্ট ১৯, ২০১৭

Your Ad here
1170px X 100px

ধান চাষ

বিনা ধান-৮ চাষ পদ্ধতি

বিনা ধান-৮ চাষ পদ্ধতি

বিনাধান-৮ আলোক অসংবেদনশীল জাত বলে বোরো ও আমন দুই মৌসুমেই রোপন করা যায় এবং ৮-১০ ডিএস/মিটার লবণাক্ত জমিতে হেক্টর প্রতি ৪.৫-৫.০ টন এবং লবণ মুক্ত স্বাভাবিক জমিতে ৬.৫-৭.৫ টন পর্যন্ত ফলন পাওয়া যায়।বিনাধান-৮জাতটির বৈশিষ্ট্যঃ১.এটি একটি উচ্চ ফলনশীল ও ভাল গুণাগুণ সম্পন্ন বোরো জাত।২.বিনাধান-৮ পরিপক্কতা পর্যমত্ম ৮-১০ ডিএস/মিটার এবং চারা অবস্থায় ১২-১৪ ডিএস/মিটার মাত্রার লবণাক্ততা সহনশীল ।৩.বিনাধান-৮ এ আধুনিক উফশী ধানের সকল বৈশিষ্ট্য বিদ্যমান। ইহা একটি আলোক অসংবেদনশ....

Read more

ধানের সাথে মাছ চাষ

ধানের সাথে মাছ চাষ

ধানের সাথে মাছ চাষ বাংলাদেশে খুবই সম্ভাবনাময় একটি খাত। সঠিক পদ্ধতি ব্যবহারের মাধমে এই খাত হতে লাভবান হওয়া যায়। জমি বাছাই করে এবং মাছের প্রজাতি বাছাই করে একত্রে এই পদ্ধতি ব্যবহার করতে হবে। তাছাড়াও জমি তৈরি, ফসল রোপণ পদ্ধতি, বালাই ব্যবস্থাপনা, মাছের পরিমাণ, মাছের খাবার, এতে খরচ এবং আয় ইত্যাদি বিষয়গুলো সম্পর্কে এখানে বিস্তারিত জানা যাবে। ....

Read more

বিনাধান-৭ চাষের পদ্ধতি

বিনাধান-৭ চাষের পদ্ধতি

বিনাধান-৭ধান বাংলাদেশের প্রধান খাদ্যশস্য। এ দেশে আউশ, আমন ও বোরো এ তিন মৌসুমে ধানের আবাদ হয। এ তিন মৌসুমের মধ্যে আমন মৌসুমে সবচেয়ে বেশি জমিতে ধানের আবাদ হয়। আমাদের দেশে আমন ধানের গড় ফলন হেক্টর প্রতি মাত্র ২.৫-৩ টন অর্থাৎ বিঘা প্রতি মাত্র ৮-১০ মণ। বিনা কর্তৃক উদ্ভাবিত উচ্চফলনশীল বিনাধান-৭ জাত উন্নত পদ্ধতিতে চাষ করে ফলন প্রায় হেক্টর প্রতি ৪.৫-৫.৫ টন অর্থাৎ বিঘা প্রতি ১৫-১৮ মণ পাওয়া যায়।১। বিনাধান-৭ বৈশিষ্ট্য কি কি?- এটি উচ্চফলনশীল ও উন্নত গুণসম্পন্ন রোপা আমন ....

Read more

Your Ad here
1170px X 100px